rasheda-rawnak-khanমায়েরা ধর নেয় মেয়ে শিশুদের ওপর নির্যাতন হলে লুকিয়ে রাখাটাই পরিবারের জন্য ভাল। এর থেকে বের হতে পারেন না তারা। ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে আজকে যাচ্ছে বলা হয়, কিন্তু সেটা খুবই সংখ্যায় কম। বাংলা ট্রিবিউন আয়োজিত শিশু নিরাপত্তা বিষয়ক বিশেষ বৈঠকিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞানের শিক্ষক রাশেদা রওনক খান একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, মায়েদের মনোজগতে আঘাত করতে হবে। ছেলে বা মেয়ে শিশু নির্যাতনের শিকার হলে তাকে প্রতিবাদ করতে হবে। এই জায়গায় নিয়ে আসতে হবে। এবং সেটা শিক্ষিত মধ্যবিত্তের মধ্য থেকেই আসতে হবে।

রাশেদা রওনক খান বলেন,  নির্যাতন লুকিয়ে রাখার কারণ হলো, পরবর্তীতে সমাজ তাকে গ্রহণ করবে কিনা সেই শঙ্কা আছে। মা বাবার কাছে শিশুর এই নির্যাতনের জন্য শিশু দায়ী নয় এই জায়গাটা মাথায় নিয়ে প্রতিবাদ করতে শিখতে হবে। এটিকে গ্রাম পর্যায়ে নিয়ে যেতে হলে শিক্ষিত মধ্যবিত্ত মায়েদের মধ্য থেকেই স্বর উঠতে হবে।

মিথিলা ফারজানার সঞ্চালনায় বৈঠকিতে অংশ নিচ্ছেন  বাংলাদেশ শিশু একাডেমীর পরিচালক মোশাররফ হোসেন, মনোরোগ বিশেষজ্ঞ মোহিত কামাল, শিশু বিষয়ক আন্তর্জাতিক সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেনের ডিরেক্টর চাইল্ড প্রটেকশন লায়লা খন্দকার, সঙ্গীতশিল্পী ও অভিবাবক সামিনা চৌধুরী, ঢাকা মহানগর পুলিশের উইমেন সাপোর্ট এন্ড ইনভেস্টেগেইশন বিভাগের উপ-কমিশনার ফরিদা ইয়াসমিন,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক রাশেদা রওনক খান,  হ্যালো বিডি’র শিশু সাংবাদিক পৃথা প্রণোদনা এবং বাংলা ট্রিবিউনের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক জুলফিকার রাসেল।

পূর্বে প্রকাশিত logo_bati

Sharing